স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক টি মধুর একটি সম্পর্ক। তবে এই সম্পর্কেও মাঝেমধ্যে আসতে পারে বেশ খানিকটা তিক্ততা। অনেক সময় স্বামী স্ত্রীর উপরে রেগে যান, আবার অনেকের আছে স্ত্রী অনেক রাগী। তবে এই রাগের ব্যাপার টা স্বামীদের ক্ষেত্রেই বেশি ঘটে। আর অনেক সময় এই রাগ থেকেই হতে পারে হিংস্রতা যা কোন সহিংস অপরাধ এমনকি সম্পর্কচ্ছেদ পর্যন্ত যেতে পারে। কথায় আছে সংসার সুখের হয় রমনীর গুনে।তাই কারোর স্বামী যদি অতিরিক্ত রাগী হয় তাহলে স্ত্রীকে এই রাগ কমানোর বা মোকাবিলা করার দায়িত্ব নিতে হয়। তাই স্বামী হঠাৎ রেগে গেলে কিভাবে তার রাগ ভাঙ্গাবেন কিংবা রাগের সাথে মোকাবিলা করবেন চলুন জেনে নিই কিছু উপায়….

স্বামীর রাগ ভাঙ্গানোর উপায়

স্বামী রেগে গেলে নিজেও রেগে যাবেন নাঃ

আপনার স্বামী যদি রেগে যান এবং আপনার উপর চড়াও হন তাহলে আপনিও হুট করে তার সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়বেন না।থামুন, চুপ থাকুন এবং ধৈর্য্য ধরুন।সে যাই বলুক না কেন চুপচাপ এড়িয়ে যান। কারণ আপনিও রেগে গেলে সমস্যা বড় আকার ধারণ করবে এমনকি আপনার স্বামী হিংস্র হয়ে উঠতে পারে।তাই আপনার মেজাজ খারাপ হয়ে গেলেও চুপ থাকুন,ঠান্ডা ঠান্ডা মাথায় যুক্তিযুক্ত কথা বলে নিজেদের মাঝে ঝামেলার অবসান ঘটান।

নিজেদের ঝামেলার কথা বাইরে জানাবেন নাঃ

অনেকেই স্বামীর সাথে রাগারাগি হলে এই কথা গুলো নিজের শশুরবাড়ির মানুষ কিংবা আশেপাশের মানুষের কাছে শেয়ার করেন। এটা করা ঠিক না।অনেকেই আছে ননদ কিংবা শাশুড়ির সাথে এসব ব্যাপারে কথা বলেন।তারা নিজের ছেলে কিংবা ভাইয়ের ভুল টা দেখেও না দেখার ভান করতে পারে, এমন কি তারা বিষয় গুলো আপনার স্বামী কে বলেও দিতে পারে। এতে আপনার স্বামী আরও বেশি রেগে যেতে পারে এমনকি ঝামেলা আরও বেশি হতে পারে। তাই যাকে তাকে নিজেদের মধ্যেকার ঝামেলার কথা বলতে যাবেন না।  

খোলামেলা ভাবে আলোচনা করুন: 

আপনার স্বামীর রাগ মোকাবেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপায় গুলোর  মধ্যে একটি হল খোলামেলা আলোচনা করা।  শান্ত এবং শ্রদ্ধার সাথে তার অনুভূতি এবং উদ্বেগ প্রকাশ করতে তাকে উত্সাহিত করুন। ভালোভাবে তার কথা শুনুন এবং তার রাগ কোথা থেকে আসছে তা বোঝার চেষ্টা করুন।

যাচাই করুন দোষ আপনার কিনাঃ

অনেক সময় স্ত্রী দের করা দোষের কারণেই স্বামীরা রেগে যান। তাই তাই স্বামী কোনো কারণে আপনার উপরে রেগে গেলে এটা ভালো ভাবে যাচাই করুন যে দোষ আপনার কিনা। যদি আপনার দোষ থেকে থাকে তাহলে নিজের দোষ স্বীকার করুন। আপনার স্বামীর কাছে ক্ষমা চান এমন ভবিষ্যতে একই রকমের ভুল কিংবা দোষ করা থেকে বিরত থাকুন।

বড়দের সাহায্য নিনঃ 

অনেক সময় এমন কিছু রাগারাগি হয় যা স্বামী স্ত্রী নিজেরা মিলে সমাধান করা সম্ভব হয়না। সেক্ষেত্রে আপনি দুই পরিবারের বড়দের সাথে বিষয় টা শেয়ার করে তাদের মাধ্যমে বিষয় টি সমাধান করে নিতে পারেন। বড়রা চেষ্টা করেন এসমস্ত বিষয় সুন্দর ভাবে সমাধান করার।

মাঝেমধ্যে ঘুরতে যান একান্তে সময় কাটানঃ 

স্বামী রেগে গেলে এবং তা স্বাভাবিক হয়ে গেলে নিজেরা ঘুরতে যান। একান্তে কিছুক্ষন সময় কাটান। একে অপরের কথা শুনুন মন দিয়ে।আপনার স্বামী কে বুঝতে চেষ্টা করুন।নিজের কথা গুলোও বলুন যে ঠিক কোন বিষয় গুলো আপনি পছন্দ করছেন না। এভাবে মিচুয়াল আন্ডারস্ট্যান্ডিং বাড়ান।এতে করে সম্পর্ক সহজ হবে।পারলে আপনার স্বামী কে কিছু উপহার দিন। তিনি আপনার জন্য অনেক স্পেশাল এবং গুরুত্বপূর্ণ তাকে তা অনুভব  করান। এতে আপনাদের সম্পর্ক সুন্দর হবে।

অন্যায় মেনে নিবেন নাঃ

অনেক সময় অনেক স্ত্রী স্বামী রাগের নামে নিজেদের উপরে হওয়া সহিংসতার প্রতিবাদ করেন না। এই ভুল করবেন না।আপনার স্বামী যদি অহেতুক রাগ হয়ে আপনাকে মারধোর করে তাহলে সেখান থেকে বেড়িয়ে আসতে ভয় পাবেন না।নিজেই নির্ধারণ করুন আপনি কতটুকু সহ্য করবেন।নিজের নিরাপত্তার ব্যবস্তা করুন। যদি দেখেন পরিস্থিতি হাতাহাতির পর্যায়ে যাচ্ছে সেখান থেকে সরে আসুন।আর আপনার সাথে অন্যায় হয়ে গেলে পুলিশি সাহায্য নিন।

উপসংহারে এটাই বলব, স্বামীর রাগ ভাঙ্গানোর জন্য প্রয়োজন ধৈর্য, ​​বোঝাপড়া এবং সুন্দর পারষ্পরিক যোগাযোগ।  উল্লেখিত উপায় গুলো  করে, আপনি আপনার সঙ্গীর সাথে একটি স্বাস্থ্যকর এবং আরও পরিপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারেন।  মনে রাখবেন, মানুষ পরিবর্তনের জন্য সময় লাগে, কিন্তু ত্যাগ এবং চেষ্টার সাথে, আপনি একসাথে এই বাধা অতিক্রম করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *